Loading...
Wednesday, January 11, 2017

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর-এর কবিতা


রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৮৬১ সালের ৭ই মে কলকাতার এক ধনাঢ্য পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিঁনি ছিলেন অগ্রণী বাঙ্গালী কবি, ঔপন্যাসিক, সঙ্গীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, কন্ঠশিল্পী ও দার্শনিক। তাঁকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ্য সাহিত্যিক মনে করা হয়। ১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের ইংরেজী অনুবাদের জন্য তাঁকে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়। ইউরোপের বাহিরের প্রথম নোবেল পুরস্কার বিজয়ী হিসাবে তিনি বিশ্বে ব্যপক খ্যাতি লাভ করেন। দীর্ঘ রোগভোগের পর ১৯৪১ সালের ৭ই অগাস্ট জোড়াসাঁকোর বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তবে মৃত্যুর সাত দিন আগে পর্যন্ত তিঁনি সৃষ্টিশীল ছিলেন।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর-এর কবিতা  

কবিতা
অন্তর মম বিকশিত করো
অনন্ত প্রেম
অমন আড়াল দিয়ে লুকিয়ে গেলে
আকাশতলে উঠল ফুটে
আছে আমার হৃদয় আছে ভরে
আজ ধানের ক্ষেতে রৌদ্রছায়ায়
আজি বসন্ত জাগ্রত দ্বারে
আমাদের ছোট নদী
আমার এ প্রেম নয় তো ভীরু
আমার এই পথ-চাওয়াতেই আনন্দ
আমার খেলা যখন ছিল তোমার সনে
আমার মাঝে তোমার লীলা হবে
আমার মিলন লাগি তুমি
আমি চেয়ে আছি
আমি বহু বাসনায় প্রাণপণে চাই
আষাঢ়
ওরে নবীন ওরে আমার কাঁচা
কাগজের নৌকা
কণিকা
কত অজানারে জানাইলে তুমি
কৃষ্ণকলি
ক্ষণিকা
গানের পারে
চিত্ত তোমায় নিত্য হবে
চির-আমি
চিরায়মানা
চড়িভাতি
ছয়
ছল
ঝড়ের দিনে
ঝুলন
যাবার দিন
যেদিন ফুটল কমল কিছুই জানি নাই
দুই বিঘা জমি
দায়মোচন
দান
দুর্ভাগা দেশ
নিদ্রিতা
নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ
নিরুদ্দেশ যাত্রা
ন্যায়দণ্ড
পূজার সাজ
প্রাণ
পুরাতন ভৃত্য
প্রার্থনা
পুরস্কার
বাঁশি
বিসর্জন
বীরপুরুষ
বোঝাপড়া

ব্যর্থ
বর্ষার দিনে
মানসী
মেঘের পরে মেঘ জমেছে
শা-জাহান
শেষ খেয়া
সোনার তরী
সুপ্তোত্থিতা
সমালোচক
হার-মানা হার পরাব তোমার গলে
হিং টিং ছট্

0 comments:

Post a Comment

 
TOP